বিরাট কোহলি ও দল কি ইতিহাস গড়তে পারবে?

বিরাট কোহলি

২০২৪ সালে বিরাট কোহলি কি প্রথমবারের মত আইপিএল জিততে পারেন? আজকের নিবন্ধে সেটি নিয়েই বিস্তারিত জানার চেষ্টা করব।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ২০২৪ এর প্রথম পর্বের খেলা ইতিমধ্যেই সমাপ্ত হয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রত্যেকটি দল ১৪টি করে ম্যাচ খেলেছে, যেখানে শীর্ষ চার দল খেলবে প্লে অফ। পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স, দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ, তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে রাজস্থান এবং চেন্নাইকে নাটকীয়ভাবে হারিয়ে চতুর্থ অবস্থানে আছে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু।

গতকাল পাঞ্জাব কিংসকে হারিয়ে কোয়ালিফায়ারে কলকাতার মুখোমুখি হবে হায়দ্রাবাদ। অন্যদিকে বৃষ্টির কারণে ড্র হওয়ায় রাজস্থান রয়্যালস খেলবে ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে এলিমিনেটর। যেখানে হারলেই স্বপ্ন শেষ কোহলিদের।

বিরাট কোহলি এর পটভূমি

ক্রিকেট বিশ্বের এক অনন্য ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি, যিনি কিং কোহলি নামেই পরিচিত। কেবল ভারত নয় বরং বিশ্ব ক্রিকেটের সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবেও বিবেচনা করা হয় বিরাট কোহলিকে। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ওডিআই ফরমেটে কোহলি খেলেছে ২৯২টি ম্যাচ, যেখানে তার রানের সংখ্যা ১৩ হাজারের অধিক। টেস্ট ফরমেটে কোহলি খেলেছে ১১৩ ম্যাচ, যেখানে তার রানের সংখ্যা ৮ হাজারের অধিক। টেস্ট ফরমেটে বিরাটের রয়েছে সর্বোচ্চ ২৫৪ রান করার রেকর্ড।

ওডিআই ফরমেটে কোহলির রয়েছে ৫০ শতক এবং ৭২ টি অর্ধ শতক।

টেস্ট ফরমেটে রয়েছে ২৯টি শতক এবং ৩০টি অর্ধ শতক। তিন ফরমেটে কোহলির শতকের সংখ্যাটা নেহাত কম নয়।

এছাড়াও আইপিএলে বিরাটের রয়েছে ২৫১ ম্যাচ খেলে ৭৯৭১ রানের রেকর্ড। আইপিএল ইতিহাসে যেটি একজন ব্যাটসম্যানের করা সর্বাধিক রান।

আইপিএলে RCB-এর ঐতিহাসিক পারফরম্যান্স

আইপিএলের সবচেয়ে ব্যর্থ দল হিসেবে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর নাম উল্লেখ করা হয়। কেননা আইপিএলের বিগত ১৬টি মৌসুমে একটিও শিরোপার দেখা পায়নি কোহলির দল। বিরাট কোহলি দীর্ঘ সময় ব্যাঙ্গালুরু দলের অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আর তাই একজন অধিনায়ক হিসেবেও ব্যর্থ কোহলি।

তবে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বেশ কয়েকটি ঐতিহাসিক পারফরম্যান্স ছিল।

ক্রিকেটে এবি ডি ভিলিয়ার্স এবং বিরাট কোহলির বাঁধা জুটি চিল নজরকাড়া।

২০১৬ আইপিএল মৌসুমে বিরাট কোহলি এবং এবি ডি ভিলিয়ার্স এর করা ২২৯ রানের পার্টনারশিপ ছিল আইপিএল ইতিহাসের এক অনন্য দৃশ্য। উক্ত ম্যাচে ১৪৪ রানের বড় জয় পায় ব্যাঙ্গালুরু। এছাড়াও ব্যাঙ্গালুরুর করার সর্বোচ্চ স্কোর ছিল ২৬৩ রান, যা ২০১৩ সাল থেকে ২০২৩ পর্যন্ত আইপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড ছিল।

আইপিএলে বিরাট কোহলি এর অধিনায়কত্ব

২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো আইপিএল শুরু হয়। শুরু থেকেই কোহলি ছিলেন ব্যাঙ্গালুরু দলের সাথে। আর তাই কোহলি দীর্ঘ সময় ব্যাঙ্গালুরু দলের হয়ে খেলেছেন। ২০১৩ সালে সর্বপ্রথম বিরাট কোহলিকে ব্যাঙ্গালুরু দলের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেওয়া হয়। যেটি পরবর্তী ৮ মৌসুম পর্যন্ত চলমান ছিল। অর্থাৎ কোহলি দীর্ঘ ৮ বছর ব্যাঙ্গালুরু দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন আইপিএলে।

অধিনায়ক হিসেবে ব্যর্থ হলেও দলের জন্য সর্বোচ্চ পারফরম্যান্স দেখিয়েছেন বিরাট।

আর তাই আইপিএলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড কোহলির ঝুলিতে। এছাড়াও আইপিএলে করেছেন নানান রেকর্ড।

২০২৪ সালে আবারও একবার স্বপ্ন পূরণের পথে কোহলির আরসিবি।

বর্তমান মৌসুম বিশ্লেষণ

বর্তমান মৌসুম ব্যাঙ্গালুরু দলের জন্য অনেকটাই চ্যালেঞ্জিং গিয়েছে। শুরুর দিকে বেশ কয়েকটি ম্যাচ হেরে প্লে অফ থেকে অনেকটাই ছিটকে যাওয়ার পথে ছিল ব্যাঙ্গালুরু। প্রথম ম্যাচ চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে হার দিয়ে শুরু হয় ব্যাঙ্গালুরুর আইপিএল মিশন। দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেলেও, পরপর ৬টি ম্যাচে হারে কোহলিরা।

যেখানে অনেকেই ভেবে নিয়েছিল ২০২৪ আইপিএলেও স্বপ্ন ভঙ্গ হতে চলেছে।

তবে এরপরই দুর্দান্ত কামব্যাক করেছে কোহলিরা। পরপর ছয়টি ম্যাচে জয় পায় ব্যাঙ্গালুরু।

যেখানে ব্যাঙ্গালুরুর স্বপ্ন ভঙ্গ হওয়ার কথা ছিল সেখানে চেন্নাই এর বিপক্ষে নাটকীয় জয় দিয়ে প্লে অফ নিশ্চিত করে তারা।

এভাবেই বর্তমান মৌসুমে অনেকটা নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে পার করে আরসিবি।

প্রতিযোগিতা বিশ্লেষণ

পয়েন্ট তালিকায় চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে বিরাট কোহলির রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু দল। দুইদিন পর অর্থাৎ ২২ তারিখ রাজস্থান রয়্যালস এর বিপক্ষে এলিমিনেটর খেলবে ব্যাঙ্গালুরু দল। ফাইনালে ওঠার স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখলে হলে উক্ত ম্যাচে জয় পেতেই হবে কোহলিদের।

অন্যথা ১৭তম বারের মত স্বপ্ন ভঙ্গ হবে ব্যাঙ্গালুরু সমর্থকদের।

এলিমিনেটরে জয় পেলে কোহলিদের পরবর্তী ধাপ কোয়ালিফায়ার ২।

যেখানে তাদের মুখোমুখি হতে হবে কোয়ালিফায়ার ১ এ হেরে যাওয়া দলের সাথে।

উক্ত ম্যাচে জয় পেলেই ফাইনালের টিকিট পাবে ব্যাঙ্গালুরু।

আইপিএলে এটি ব্যাঙ্গালুরুর জন্য দুর্দান্ত এক কামব্যাক, তবে ফাইনালে যাওয়ার পথ অনেকটাই চ্যালেঞ্জিং ব্যাঙ্গালুরুর জন্য।

কেবল দুটি ম্যাচই ব্যাঙ্গালুরুর স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখতে পারে।

বিরাট কোহলি এর প্রেরণা এবং উত্তরাধিকার

ব্যাঙ্গালুরু দলের হয়ে কোহলির “এক পার্সেন্ট তত্ত্ব” বর্তমানে একটি ভাইরাল বিষয়। ২০২৪ আইপিএল শুরুর আগেই কোহলির হয়তো স্বপ্ন ছিল এই আইপিএলে শিরোপার দেখা মিলবে। তবে আইপিএলের প্রথম ৮ ম্যাচের ৭টিতেই হেরে যায় ব্যাঙ্গালুরু দল।

কিন্তু আত্মবিশ্বাস হারায়নি বিরাট কোহলি এবং তার সতীর্থরা।

এক পর্যায়ে ব্যাঙ্গালুরুর প্লে অফ খেলার সম্ভবনা যেখানে ক্ষীণ হয়, সেখানে কোহলিকে “এক পার্সেন্ট তত্ত্ব” অনুসরণ করতে দেখা যায়।

যেখানে তিনি তার সতীর্থদের অনেকটাই আত্মবিশ্বাসের সাথে প্রেরণা জুগিয়েছিল।

কোহলি তার সতীর্থদের বার্তা দিচ্ছিল শেষ পর্যন্ত লড়াই করার। যেমনটি দেখা গিয়েছে চেন্নাইয়ের সাথে ডু অর ডাই ম্যাচে।

এভাবেই অধিনায়কত্ব থেকে দূরে থেকেও দলের জন্য প্রেরণা জুগিয়ে দলকে প্লে অফের দিকে এগিয়ে নিয়েছেন কোহলি।

ভবিষ্যদ্বাণী এবং বিশেষজ্ঞের মতামত

আমাদের আজকের বিষয়বস্তু ২০২৪ আইপিএলে কোহলি কি সক্ষম হবেন ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে প্রথম শিরোপা জয় করতে? এই ব্যাপারে ক্রিকেট অনুরাগী এবং বিশেষজ্ঞদের বেশ কিছু মতামত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু।

বিশেষজ্ঞদের মতে এবার মীরাক্কেল হতে চলেছে আইপিএলে।

বিরাট কোহলিদের হাতে আইপিএল শিরোপা দেখলেও অবাক কিছুই হবে না।

বিশেষজ্ঞদের মতে এবার আরসিবি তাদের প্রথম শিরোপা জয়ের দিকে অনেকটাই এগিয়ে। বাকিটা এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা।

উপসংহার

আজকের পর্বে কোহলির ব্যাঙ্গালুরু দলের শিরোপা জয়ের ভবিষ্যদ্বাণী সম্পর্কে জানলেন।

কোহলির ব্যাঙ্গালুরুর এবার শিরোপা জয় করতে পারবে কিনা এই ব্যাপারে আপনার কি মতামত সেটি জানিয়ে দিতে পারেন মন্তব্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *